Thursday , July 7 2022

বিশ্বসেরা ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে নেই বাংলাদেশ, ভারতের ৯টি পাকিস্তানের আছে ৩ টি

একটা দেশ শিক্ষায় কতটা উন্নত তা মোটামুটি ঐ দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর র‌্যাংকিং দেখলেই অনেকটা বুঝা যায়। গ্লোবাল র‌্যাংকিংয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থানই জানান দেয় দেশের শিক্ষার মানদন্ড। গত বছরের মতো এবারও ৮০১ থেকে ১০০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা ও গবেষণা সংস্থা কোয়াককোয়ারেলি সায়মন্ডসের (কিউএস) বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে নেই বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলাদেশের জন্য এটা সত্যিই লজ্জাজনক। তবে এই লজ্জা কাটিয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ভারতের ৯টি ও পাকিস্তানের ৩টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে।

বুবধার (৮ জুন ২০২২) কিউএস ওয়ার্ল্ড বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাঙ্কিং-২০২৩ প্রকাশ করা হয়। গত বছরের মতো এবারও ৮০১ থেকে ১০০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। কিউএস ওয়ার্ল্ড বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাঙ্কিং-২০২৩ এর তালিকায় ৫০০-এর পরে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অবস্থান সুনির্দিষ্ট করে উল্লেখ করেনি।

র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে জায়গা করে নিতে না পারলেও ১০০১ থেকে ১২০০তম বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে দেশের আরও দুই বেসরকারি “ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়” ও “নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়”।

কিউএস ওয়ার্ল্ড বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাঙ্কিং কয়েকটা দিক বিবেচনা করে দিয়ে থাকে। একাডেমিক খ্যাতি, চাকরির বাজারে সুনাম, শিক্ষক-শিক্ষার্থী অনুপাত, শিক্ষকপ্রতি গবেষণা-উদ্ধৃতি, আন্তর্জাতিক শিক্ষক অনুপাত ও আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী অনুপাতের ভিত্তিতে বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর র‍্যাঙ্কিং করে প্রতিষ্ঠানটি।

২০১২ সালে কিউএস র‌্যাঙ্কিংয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ছিল ৬০১ এর মধ্যে। ২০১৪ সালে তা পিছিয়ে ৭০১তম অবস্থানের পরে চলে যায়। ২০১৯ সালে তালিকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান আরও পেছনের দিকে চলে যায়। ২০২১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ছিল ৮০১ থেকে ১০০০-এর মধ্যে।

এ বছর ভারতের ৯টি প্রতিষ্ঠান বিশ্বের সেরা ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে। সেগুলোর মধ্যে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সাইন্সের অবস্থান ১৫৫তম, যেটি গতবার ছিল ১৮৬। এ ছাড়া ভারতের আইআইটি বোম্বে ১৭২তম, আইআইটি দিল্লি ১৭৪তম, আইআইটি মাদ্রাস ২৫০তম, আইআইটি কানপুর ২৬৪তম, আইআইটি খড়গপুর ৩৬৯তম, আইআইটি গোয়াহাটি ৩৮৪তম, আইআইটি ইনদোর ৩৯৪তম অবস্থানে রয়েছে। 

বিশ্বসেরা ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় রয়েছে পাকিস্তানের ৩টি বিশ্ববিদ্যালয়। সেগুলো হলো ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (এনইউএসটি) ৩৩৪তম, কায়েদ-ই-আজম বিশ্ববিদ্যালয় ৩৬৩তম এবং পাকিস্তান ইনস্টিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অ্যাপ্লাইড সায়েন্সেস ৩৯০তম।

গত ১০ বছরের মতো এবারও তালিকায় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি)। এছাড়া, ২০২৩ সালের তালিকায় শীর্ষ পাঁচে থাকা বাকি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো-  ইউনিভার্সিটি অব কেমব্রিজ, স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ড ও হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি।

Check Also

চলতি মাসেই খুলছে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক …