Friday , December 2 2022

চলতি মাসেই খুলছে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় এবং আমরা মালয়েশিয়ার সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছতে পেরেছি। আমরা আশা করছি জুন মাসের মধ্যেই মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানো শুরু করব। নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ার কাছে আমাদের ১৫২০টি বৈধ রিক্রুটিং এজেন্সির তালিকা হস্তান্তর করা হয়েছে। আর কতগুলো রিক্রুটিং এজেন্সি কাজ করবে তা নির্ধারণ করবে নিয়োগদাতা দেশ মালয়েশিয়া । কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম করলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। সেক্ষেত্রে মালয়েশিয়ায় তারা তাদের মতো এবং আমরা আমাদের মতো ব্যবস্থা নেব। প্রথম বছরেই দুই লাখ কর্মী যাওয়ার কথা চুক্তি অনুযায়ী এবং পাঁচ বছরে পাঁচ লাখ কর্মী যাওয়ার কথা। আশাকরি তাদের চাহিদা ও পরিস্থিতি অনুযায়ী পাঁচ লাখ কর্মী আমরা দ্রুত পাঠিয়ে দিতে পারব।অভিবাসন খরচ বাবদ ১ লক্ষ্য ৬০ হাজার টাকার কম হওয়ার আভাস দিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী।  কর্মীদের বেতন সর্বনিম্ন ১৫২০ রিঙ্গিত হবে এবং কর্মীর থাকা ও চিকিৎসাসহ অন্যান্য সুবিধা থাকবে। পাসপোর্ট, মেডিকেল, করোনা টেস্টে ও কোয়ারেন্টিনের খরচ খরচ কর্মীকে বহন করতে হবে। মালয়েশিয়ার নিয়োগকর্তা কর্মীদের যাওয়া-আসার বিমান খরচ বহন করবে। প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী আরও জানান এবার কর্মী যাওয়ার ক্ষেত্রে অভিবাসন ব্যয়, কর্মীদের বেতন ও নিরাপত্তার বিষয়টি বিশেষ ভাবে গুরুত্ব দিচ্ছে দুই দেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *